গাজীপুরে আওয়ামী লীগের স্মরণ অনুষ্ঠানে প্রতিপক্ষের হামলায় এক নেতা খুন, আহত-৩ : আটক-২

Gazipur-4-_21_August_2015-_Awamileege_leader_Murder-2গাজীপুরের কালিয়াকৈরে আওয়ামী লীগের শোক দিবসের অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর উপস্থিতিতে শুক্রবার সন্ধ্যায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি নিহত হয়েছেন। এসময় কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামীলীগের ৩নং ওয়ার্ডের সভাপতি মো. হোসেন আলীসহ কমপক্ষে তিনজন আহত হন। নিহতের নাম রফিকুল ইসলাম (৫০)। তিনি কালিয়াকৈর উপজেলার টেংরাবাড়ি এলাকার মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে। এঘটনায় পুলিশ দুই জনকে আটক ও প্রাইভেটকার জব্দ করেছে।

কালিয়াকৈর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের সভাপতি মো. হোসেন আলী ও স্থানীয় আওয়ামীলীগের কর্মী মো. আব্দুল মোতালেব জানান, গাজীপুরের কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শুক্রবার বিকালে কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রাস্থিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কলেজ মাঠে জাতীয় শোক দিবস ও  ২১আগস্টের গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের ৫ নং ওয়ার্ডের সভাপতি আব্দুল আজিজ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গাজীপুর-১ আসনের সাংসদ ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। অনুষ্ঠান শুরুর কিছু সময় পর বক্তব্য রাখেন কালিয়াকৈর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম। তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করে অনুষ্ঠান চলা অবস্থায় মঞ্চ থেকে নেমে সভাস্থলের পশ্চিম পাশে একটি চায়ের দোকানে বসে চা পান করেন। এসময়ে প্রতিপক্ষের ১০-১২ যুবক লাঠি, রড ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে তার উপর হামলা চালায় এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারী কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন ও দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। তার মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে সভাস্থলসহ আশেপাশের এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয়। তার মৃত্যুর খবর অনুষ্ঠান স্থলে পৌছালে সভায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে উপজেলা যুবলীগের এ সাবেক নেতার মৃত্যুর খবর পেয়ে  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বক্তব্য না দিয়েই অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করে হাসপাতালে যান।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক শামসুল হুদা নাঈম জানান, নিহতের পেটে তিনটি, বুকে একটি ছুকিাঘাতের জখম এবং মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে।

দলের স্থানীয় নেতা কর্মীরা জানায়, সম্প্রতি কালিয়াকৈর উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে দলীয় বিভিন্ন কর্মকান্ড নিয়ে রফিকুলের সঙ্গে দ্ব›দ্ব চলছিল। এর জেরেই রফিকুলের ওপর ওই হামলার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে তাদের ধারণা।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক জানান,  হামলা চালিয়ে হত্যা কান্ড ঘটানোর সাথে জড়িত এমন দুই জনকে আটক করা হয়েচে এবং একটি প্রাইভেট কার আটক করা হয়েছে।
খবর পেয়ে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম আলম ও পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *